বার্ষিক সাধারণ সভা- ২০১৯ অনুষ্ঠিত

ঢাকা ইউনিভার্সিটি অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের বার্ষিক সাধারণ সভা গত ২৭ এপ্রিল ২০১৯, শনিবার বিকেল ৪:০০টায় ঢাকা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র (টিএসসি) মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি এ. কে. আজাদ-এর সভাপতিত্বে বার্ষিক সাধারণ সভায় উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য ও অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের প্রধান পৃষ্ঠপোষক অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান।

বার্ষিক সাধারণ সভা পরিচালনার জন্য গঠনতন্ত্রে বর্ণিত সদস্যদের উপস্থিতি নিশ্চিত করে সভার কার্যক্রম শুরু করা হয়। অনুষ্ঠানের সঞ্চালক অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব আশরাফুল হক মুকুল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য ও অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের প্রধান পৃষ্ঠপোষক অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান, ঢাকা ইউনিভার্সিটি অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সম্মানিত সভাপতি জনাব এ. কে. আজাদ, সিনিয়র সহ-সভাপতি আলহাজ্ব এডভোকেট মোল্লা মোহাম্মাদ আবু কাওছার, সহ-সভাপতি মিসেস মুনিরা খান, সহ-সভাপতি শাইখ সিরাজ, মহাসচিব রঞ্জন কর্মকার, কোষাধ্যক্ষ দেওয়ান রাশিদুল হাসান, কার্যনির্বাহী কমিটির সিনিয়র সদস্য সেলিনা খালেক, জনাব আনোয়ারুল আলম চৌধুরী পারভেজ ও খাঁজা নারগিস হোসেন- কে মঞ্চে আসন গ্রহণের জন্য সবিনয় অনুরোধ জানান।

পবিত্র ধর্মগ্রন্থ থেকে পাঠের মধ্য দিয়ে বার্ষিক সাধারণ সভার কার্যক্রম শুরু হয়। পবিত্র ধর্মগ্রন্থ থেকে পাঠের পর্বটি পরিচালনা করেন যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ আমিনুর রহমান মাইকেল। পবিত্র কোরআন থেকে পাঠ করেন অধ্যাপক ড. মো. আব্দুল কাদির, পবিত্র গীতা থেকে পাঠ করেন অধ্যাপক ড. অসীম সরকার, পবিত্র বাইবেল থেকে পাঠ করেন অধ্যাপক ড. তপন ডি. রোজারিও এবং পবিত্র ত্রিপিটক থেকে পাঠ করেন অধ্যাপক ড. সুমন কান্তি বড়–য়া।

বার্ষিক সাধারণ সভায় ঢাকা ইউনিভার্সিটি অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন ১। অসচ্ছল শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদান ২। সারাদেশব্যাপী সামাজিক ব্যাধির বিরুদ্ধে প্রচারাভিযান ৩। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অবকাঠামোগত উন্নয়ন এবং ৪। যে সকল শিক্ষার্থী শিক্ষাজীবন শেষ করে কর্মজীবনে প্রবেশ করতে চাচ্ছে তাদের দক্ষতা ও পেশাদারিত্ব বাড়ানোর জন্য বিভিন্ন কর্মসূচি চলমান রাখার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।

বার্ষিক সাধারণ সভায় ২০২০ সালে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবর্ষ পালন, ২০২১ সালে স্বাধীনতার পঞ্চাশ বছর পূর্তি এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শতবছরকে সামনে রেখে বিভিন্ন অনুষ্ঠান করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। ঢাকা ইউনিভার্সিটি অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল হল ও বিভাগীয় অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন-এর সুচিন্তিত মতামত ও পরামর্শ নিয়ে একটি সমন্বিত কর্মসূচি গ্রহণ করার ক্ষেত্রে সকল সদস্যগণকে সর্বাত্মক সহযোগিতা করার আহ্বান জানান।

বার্ষিক সাধারণ সভা ২০১৯-এ ঢাকা ইউনিভার্সিটি অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের নতুন কার্যনির্বাহী কমিটি ঘোষণা করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার এ কে এম আরিফুর রহমান। আগামী তিন বছরের জন্য (২০১৯-২০২২) গঠিত কার্যনির্বাহী কমিটির সভাপতি এ. কে. আজাদ, সিনিয়র সহ-সভাপতি মোল্লা মোহাম্মাদ আবু কাওছার, মহাসচিব রঞ্জন কর্মকার।

সভায় গঠনতন্ত্র সংশোধনী সংক্রান্ত নিম্মোক্ত প্রস্তাবসমূহ উপস্থাপন করেন অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি জনাব এ. কে. আজাদ।

১ম সংশোধনী:
বর্তমান গঠনতন্ত্র:
সদস্যভুক্তির নিয়মাবলী (ধারা ১০): ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়-এর যে কোন অ্যালামনাই অত্র এসোসিয়েশনের সংবিধানের বিধি ও নিয়মাবলীর প্রতি পূর্ণ আস্থা জ্ঞাপন করিয়া নির্ধারিত ফি প্রদান পূর্বক এসোসিয়েশনের সদস্য হওয়ার জন্য নির্ধারিত আবেদন ফর্মে মহাসচিব বরাবর আবেদন করিতে পারিবেন এবং আবেদন কার্যনির্বাহী কমিটি কর্তৃক অনুমোদিত হইলেই আবেদনকারী এসোসিয়েশনের সদস্য হিসাবে গণ্য হইবেন। শর্ত থাকে যে,কার্যনির্বাহী কমিটি যে কোন আবেদন গ্রহণ কিংবা প্রত্যাখান করার সর্বময় ক্ষমতা সংরক্ষণ রাখে।

প্রস্তাব: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের হল সংযুক্ত কথাটি যুক্ত করা।

২য় সংশোধনী:
বর্তমান গঠনতন্ত্র: ৩রা মার্চ’২০১২ অনুষ্ঠিত সার্বিক সাধারণ সভায় অনুমোদিত হয়।
জীবন সদস্য ফি (বিধি ২): নতুন সদস্যপদ আবেদন পত্রের সঙ্গে ডিগ্রি প্রাপ্ত সার্টিফিকেটসহ দুই কপি পাসপোর্ট সাইজের ফটো এবং এককালীন ২৫০০/- (পঁিচশ শত) টাকা প্রদান করিতে হইবে। এরূপ নতুন জীবন সদস্যকে একটি ডিজিটাল আইডি কার্ড প্রদান করা হইবে।

প্রস্তাব:
এককালীন ২৫০০ (পঁচিশ শত) টাকার পরিবর্তে ৫০০০ ( পাঁচ হাজার) টাকা করা।

৩য় সংশোধনী:
বর্তমান গঠনতন্ত্র: কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য (ধারা-২১): বর্তমানে কার্যনির্বাহী কমিটির সর্বমোট সদস্য সংখ্যা ৪১ জন। এবং পদাধিকার বলে সদ্য বিদায়ী কমিটির সভাপতি এবং মহাসচিব সদস্য থাকবেন।

প্রস্তাব:
কার্যনির্বাহী কমিটির ২৮ শে মার্চ ২০১৯ ৩২তম সভায় অ্যাসোসিয়েশনের সার্বিক কর্মকান্ডে অধিকতর গতিশীলতা আনয়নের লক্ষ্যে গঠণতন্ত্রের ধারা ২১ সংশোধনী প্রস্তাব:
৪১ সদস্যের পরিবর্তে ৪৩ সদস্য বিশিষ্ট কার্যনির্বাহী কমিটি।
৪৩ সদস্য কার্যনির্বাহী কমিটির মধ্য থেকে আরো একজন সহ-সভাপতি, একজন আইন সম্পাদক, একজন সমাজসেবা সম্পাদক, একজন অ্যাপ্যায়ন সম্পাদক এবং একজন আন্তর্জাতিক যোগাযোগ সম্পাদক পদসমূহ যুক্ত করা।

গঠনতন্ত্রের উত্থাপিত সংশোধনীসমূহ উপস্থিত জীবন সদস্যবৃন্দ সর্বসম্মতিক্রমে পাশ করেন।

বার্ষিক সাধারণ সভায় শোক প্রস্তাব উত্থাপন করেন সংগঠনের সহ-সভাপতি মুনিরা খান। স্বাগত বক্তৃতা করেন সিনিয়র সহ-সভাপতি মোল্লা মোহাম্মাদ আবু কাওছার।

২০১৮-২০১৯ সালের বার্ষিক সাধারণ সভার কার্যবিবরণী পাঠ করেন সাংগঠনিক সম্পাদক আফজালুর রহমান বাবু। সংগঠনের মহাসচিব রঞ্জন কর্মকার বিগত বছরের বার্ষিক প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন। কোষাধ্যক্ষ দেওয়ান রাশিদুল হাসান গত এক বছরের হিসাব নিরীক্ষা প্রতিবেদন পেশ করেন। এরপর হিসাব নিরীক্ষা প্রতিবেদন, গত বছরের বার্ষিক কার্যবিবরণী ও মহাসচিবের প্রতিবেদনের ওপর আলোচনা হয়। ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন সিনিয়র সদস্য সেলিনা খালেক ।

সভায় সভাপতি মহোদয় বিভিন্ন কর্মসূচি সম্পর্কে তার প্রস্তাব ও পরিকল্পনা তুলে ধরেন এবং উপস্থিত সদস্যবৃন্দ উন্মুক্ত আলোচনার আহ্বান জানান। উপস্থিত জীবন সদস্যবৃন্দ অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের আগামী দিনগুলোতে করণীয় বিষয়গুলোর উপর স্বতঃস্ফুর্ত ও গঠনমূলক আলোচনায় অংশগ্রহন করেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য এবং অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের প্রধান পৃষ্ঠপোষক অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান তার বক্তব্যে অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের কার্যক্রমের প্রশংসা করে আগামী দিনের কর্মকা-ে অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সহযোগিতার আশাব্যক্ত করেন।

অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের প্রায় দুই হাজার সদস্যের প্রাণবন্ত উপস্থিতিতে বৈশাখী আড্ডা এবং সন্ধ্যায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে বার্ষিক সাধারণ সভা শেষ হয়।

Pin It on Pinterest